আজ ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

https://jatiyobarta.com/wp-content/uploads/2020/12/সন্তানকে-শ্বাসরোধে-হত্যার-পর-গলায়-ফাঁস-দিয়ে-আত্মহত্যা.jpg
২ বছরের সন্তানকে হত্যার পর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

২ বছরের সন্তানকে হত্যার পর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

বৃহস্পতিবার (০৩ ডিসেম্বর) ভোরে  বরিশাল মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলায় পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বদরপুর এলাকায় পারিবারিক কলহের জের ধরে ২ বছরের মেয়েকে শ্বাসরোধে হত্যার পর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন এক মা।

নিহত শিশুর নাম আফরিন জান্নাত (২)। আর তার মায়ের নাম সালমা বেগম (২৫)। আফরিন ওই এলাকার আমজাদ হোসেনের মেয়ে। আমজাদ হোসেন পেশায় কাঠ ব্যবসায়ী।

সালমা বেগমের শাশুড়ি রোকেয়া বেগম জানান, তার ছেলে আমজাদের সঙ্গে ৮ বছর আগে সালমা বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর আমজাদ ও সালমার সম্পর্ক ভালোই ছিল। মাসখানেক ধরে আমজাদ রাতে দেরি করে বাড়ি ফেরায় সালমার সঙ্গে কলহ দেখা দেয়।

Advertisements

বুধবার রাত ৯টার পর আমজাদ বাড়ি ফেরে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে আমজাদ বাড়ি থেকে বেরিয়ে তার ছোট বোনের বাড়িতে ঘুমাতে যায়।

আরও পড়ুনঃ এএসআইয়ের প্রকাশ্যে ঘুষ নেয়ার ভিডিও ভাইরাল

সকালে তিনি নাতনিকে দেখতে এসে ঘরের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ পান। পরে ভেতরে প্রবেশ করে ঘরের মেঝেতে নাতনি আফরিন জান্নাতকে পড়ে থাকতে দেখেন। আর ঘরের আঁড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় ঝুলতে দেখেন পুত্রবধূ সালমা বেগমকে। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে মৃতদেহ দুটি উদ্ধার করে।

মেহেন্দিগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি আবিদুর রহমান জানান, আমজাদ হোসেনের বাড়ি থেকে তার স্ত্রী ও দুই বছরের মেয়ের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। যেহেতু শিশুটি ও তার মা ছাড়া ঘরের ভেতরে কেউ ছিল না, তাই আশঙ্কা করা হচ্ছে মেয়েকে বালিশচাপা দিয়ে হত্যার পর মা আত্মহত্যা করেছেন।

ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দুটি উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিতভাবে বলা যাবে।

     এই বিভাগের আরও খবর দেখুনঃ