আজ ৩০শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

https://jatiyobarta.com/wp-content/uploads/2020/11/২০০৬-সালে-নিখোঁজ-১৪-বছর-পর-ফিরলেন-পরিবারের-কাছে.jpg
২০০৬ সালে নিখোঁজ , ১৪ বছর পর ফিরলেন পরিবারের কাছে

২০০৬ সালে নিখোঁজ , ১৪ বছর পর ফিরলেন পরিবারের কাছে

২০০৬ সালে নিখোঁজ হন গীতা সরকার। অতঃপর  ২০২০ সালে  ফিরলেন পরিবারের কাছে। নিখোঁজের ১৪ বছর পর মেয়েকে ফিরে পেয়েছে কলকাতার এক পরিবার।

আনন্দবাজার’র একটি প্রতিবেদন অনুসারে, কলকাতার ফুলবাগান থানা ও একটি এনজিওর প্রচেষ্টায় পরিবারের কাছে ফিরেন গীতা। ১৪ বছর পর ভিডিও কলে মা-বাবাকে দেখে আবেগ ধরে রাখতে পারেননি তিনি। সঙ্গে সঙ্গেই বলে ওঠেন, ‘মা, মাগো। বাবা, তোমাদের চিনতে পেরেছি।’

চিনতে পেরেছেন বোন ও ভগ্নিপতিকেও। এর মধ্যে গীতার ছেলেমেয়েও বড় হয়ে গেছে। তার মেয়েও সন্তানের মা হয়েছেন। কিন্তু এতদিন তিনি কোথায় ছিলেন বা কী অবস্থায় ছিলেন, কিছুই মনে করতে পারছেন না।

Advertisements

জানা গেছে, মার্চে ফুলবাগান থানার পুলিশ কর্মকতারা তাকে উদ্ধার করেন। এরপর তুলে দেন এক এনজিওর হাতে। ওই এনজিওর কর্মকর্তা ভারতী আইচ ও ফুলবাগান এবং মালদহের বামনগোলা থানার কর্মকতাদের সেই প্রচেষ্টায় অবশেষে ফল মিলল। ১৪ বছর পর হারিয়ে যাওয়া গীতা সরকারকে তুলে দেয়া হলো তার পরিবারের লোকদের হাতে।

আরও পড়ুনঃ ফাইজার জরুরি অনুমোদন চেয়েছে করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগে

গীতার বোন কল্পনা বালা ও ভগ্নিপতি গণেশ বালা জানান, ২০০৬ সালের ২১ জুন নিখোঁজ হন গীতা। বিয়ের পর থেকেই অমানুষিক অত্যাচার চলত তার ওপর। স্বামীর অত্যাচারের ফলে পাঁচ বছরের মেয়ে ও তিন বছরের ছেলেকে নিয়ে বাপের বাড়িতে এসে ওঠেন।

বাপের বাড়িতেও নুন আনতে পান্তা ফুরায়। তাই এক কৃষকের বাড়িতে কাজ করে গীতা প্রতিদিন খাওয়া ও ৩০ টাকা করে পেতেন। সেই টাকা আনতে গিয়েই আর বাড়ি ফেরেননি। আগামী ২৮ তারিখ নভেম্বর গীতাকে মালদহে মা-বাবার কাছে নিয়ে যাওয়া হবে।

     এই বিভাগের আরও খবর দেখুনঃ