আজ ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

হাসপাতালের ছাদ থেকে চিকিৎসাধীন শিশুর মা কেন লাফ দিলেন?
হাসপাতালের ছাদ থেকে চিকিৎসাধীন শিশুর মা কেন লাফ দিলেন?

হাসপাতালের ছাদ থেকে চিকিৎসাধীন শিশুর মা কেন লাফ দিলেন?

রাত সোয়া ১১টা। ঢাকার মোহাম্মদপুরের শিশু-নবজাতক ও জেনারেল হাসপাতালের ম্যাথর প্যাসেজে তখনও ছোপ ছোপ রক্ত! যদিও ঘটনাটি রাত পৌনে ৯টার।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বর্ণনা করছিলেন, ৮ তলা ভবনের এ হাসাপাতালের ছাদ থেকে পড়ে কারও বেঁচে থাকার কথা না। তবে পড়ার মুহূর্তে সাইনবোর্ড জাতীয় একটা কিছুর সঙ্গে বাঁধা পেয়েছিলেন। গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি আছেন এ হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ৩ বছরের শিশু তাসিনের মা রিমা।

লালমাটিয়া মহিলা কলেজের বিপরীতে আবাসিক এলাকার হাসপাতালটির বিশেষত্বে লেখা নবজাতক ও শিশুদের জন্য। চিকিৎসকরা বলছিলেন, জন্মগত ত্রুটি নিয়ে তাসিন ২ মাস বয়স থেকেই এ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিল। তার পাইলসের সমস্যা রয়েছে। একবার অস্ত্রোপচারও হয়েছে। তবে দ্বিতীয় দফার অস্ত্রোপচারের জন্য তাকে ৯ দিন আগে আবার ভর্তি করানো হয় এ হাসাপাতালে।

Advertisements

হাসপাতাল সূত্র বলছে, দ্বিতীয় দফা অস্ত্রোপচারের পরই অবস্থা খারাপ হতে থাকে শিশু তাসিনের। স্থানান্তর করা হয় এনআইসিইউতে। গেল প্রায় এক সপ্তাহ ধরে সেখানেই চিকিৎসাধীন আছেন তাসিন।

স্বামী প্রবাসী হওয়ায় রিমার একমাত্র সন্তানের অস্ত্রোপচারের সময় তার সঙ্গে ছিলেন তার শাশুড়ি। স্বজন ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ উভয়ই বলছে, রিমা ছাদ থেকে লাফ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। কেন তিনি আত্নহত্যার চেষ্টা করলেন, এর উত্তরে সবাই শিশু তাসিনের কথাই বলেছেন।

দ্বিতীয় দফা অস্ত্রোপচারের পর শিশুটির অবস্থা ক্রমশ অবনতির দিকে যাচ্ছে ডাক্তারদের এমন খবরের পরই অতিমাত্রার হতাশা থেকে তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে ধারণা করছেন সবাই।

তবে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মোহাম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল লতিফ জানান, তিনি কিছু জানেন না। কর্তব্যরত কর্মকর্তার যোগাযোগ নম্বরে একাধিক কল করা হলেও কল ধরেননি তিনি।

     এই বিভাগের আরও খবর দেখুনঃ