আজ ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

প্রাইভেট কারেই পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয় ঐ নববধূকে

সিলেটের এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে প্রাইভেট কারেই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে ছাত্রলীগের কর্মীরা। এসময় তারা গৃহবধূর স্বামীকে ছাত্রাবাসের ৭নং ব্লকের ৫ তলা ভবনের একটি পাশে নিয়ে তাকে নানাভাবে ব্যস্ত রাখে।কারের মধ্যেই মারধর করে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করা হয়। এমনকি লাঠি দিয়ে তার পাসহ শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাত করে ও স্বর্ণের চেইনও ছিনতাই করে তারা।

মামলার বাদী গৃহবধূর স্বামী আক্ষেপের সঙ্গে জানান, ‘প্রায় ৩ মাস পূর্বে বিয়ে হয়েছে তাদের। শুক্রবার ছুটির দিন হওয়ায় স্ত্রীকে নিয়ে নিজেদের প্রাইভেট কারে করে ঘুরতে বের হন। শাহপরাণ (রহ.) এর মাজার জিয়ারত করার পর দক্ষিণ সুরমার বাড়ি ফিরছেন তারা। এমসি কলেজের গেটের সামনে কার রেখে সিগারেট কিনতে যাওয়া তাদের জীবনে কাল হয়ে দাঁড়ায় বলেও তিনি মন্তব্য করেন।’

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে তিনি বলেন, ‘ছাত্রাবাসের ভেতরে ৫ম তলার একটি ভবনের সামনে নিয়ে যায় কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মী। আমাকে অন্যত্র নিয়ে গিয়ে তারা আমার স্ত্রীকে ধর্ষণ করে। এসময় কয়েকজন পাহারা দিচ্ছিলো। তখন ওই ভবনের ২য় তলা থেকে এক যুবক বারান্দায় বের হলে তাকে ধমক দিয়ে চলে যেতে ছাত্রলীগের কর্মীরা। দূর থেকে আমি বিষয়টি দেখতে পাই। এরপর তারা আমার প্রাইভেট কার রেখে আধঘণ্টার মধ্যে ৪৪ হাজার টাকা নিয়ে আসতে বলে। তখন আমি বিধ্বস্ত অবস্থায় আমার স্ত্রীকে নিয়ে পায়ে হেঁটে এমসি কলেজের ছাত্রাবাসের সামনে এসে সিএনজি অটোরিকশা করে টিলাগড়ে যাই। আর পেছন থেকে উল্লাস করে ছাত্রলীগের কর্মীরা। সেখান থেকে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশকে নিয়ে ছাত্রাবাসে এসে কার উদ্ধার করলেও ছাত্রলীগের কর্মীরা পালিয়ে যায়। যত দ্রুত সম্ভব মামলার আসামিদের গ্রেফতারের দাবি জানান তিনি।’

Advertisements

সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশার (গণমাধ্যম) জ্যোর্তিময় সরকার বলেন, ‘পুলিশ ঘটনার পর থেকেই আসামিদের গ্রেফতার করার জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছে। এছাড়া অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এমসি কলেজ ও ছাত্রাবাসে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।’

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহপরাণ থানার ওসি (তদন্ত) ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য বলেন, ‘পুলিশ ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি জায়গায় অভিযান চালিয়েছে। কিন্তু আসামিরা স্থান পরিবর্তন করায় পুলিশ তাদের খোঁজ পাচ্ছে না। তবে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করার জন্য তৎপর রয়েছে। নানা কৌশল অবলম্বন করে পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে।’

 

     এই বিভাগের আরও খবর দেখুনঃ