আজ ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

প্রবল ঝড়বৃষ্টির মাঝেও নদী পেরিয়ে বিয়ে সারলেন যুগল

প্রবল ঝড়বৃষ্টির মাঝেও নদী পেরিয়ে বিয়ে সারলেন যুগল

ঘূর্ণিঝড় কুইন্টার প্রভাবে ফিলিপিন্সে দিনকয়েক ধরে ভারী বৃষ্টি চলছে। ঝোড়ো হাওয়াও রয়েছে। তার প্রভাবে নদীগুলিও বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে। কিন্তু এমন প্রাকৃতিক বিপর্যয় যে আসবে তা আগে থেকে কারোর জানা ছিল না। তাই তো চলতি মাসের ২৩ তারিখ বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন রনিল গুইলিপা এবং জেজিয়েল মাসৌলা। কিন্তু বিয়ে করতে চার্চে যাবেন কীভাবে? কারণ, চার্চের পথের নদী যেন প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে যৌবন লাভ করেছে। হু হু করে বইছে। বিয়ে কী তবে পিছিয়ে দেওয়া হবে? এই ভাবনাও ভেবেছিলেন পরিজনেরা। তবে তাতে তরুণ-তরুণীর মন সায় দিচ্ছিল না।

কথায় বলে ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়। সেক্ষেত্রে কোনও প্রতিকূলতাই বড় হয়ে দাঁড়াতে পারে না। সেকথাই যেন খেটে গেল ফিলিপিন্সের এক দম্পতির (Couple) ক্ষেত্রে। কোনও বাধাই যে জীবনকে থমকে দিতে পারে না তা নিজেদের জীবনের বিশেষ মুহূর্ত উদযাপনের মাধ্যমে প্রমাণ করলেন তাঁরা।

তাই বিয়ের দিন সকাল সকাল নির্ধারিত পোশাক আশাক পরে তৈরি হয়ে যান তাঁরা। চার্চের উদ্দেশে বাড়ি থেকে বেরিয়ে পড়েন তাঁরা। হবু স্ত্রীর সাদা পোশাক নষ্ট কিছুতেই হবে দেবেন না তরুণ। তাই নদী পার করার সময় উঁচু করে তুলে ধরেন মনের মানুষের পোশাক। প্রেমিকের শক্ত হাত পেলে কে না পথের বাধা পেরিয়ে এগোতে পারে? তাই তো প্রেমিকাও চার্চের পথে এগিয়ে চলেন তড়তড়িয়ে।

Advertisements

চার্চে দাঁড়িয়ে দু’জনে সারাজীবন একসঙ্গে পথ চলার অঙ্গীকারবদ্ধ হন। জীবনের বিশেষ মুহূর্তে অন্যরকম অভিজ্ঞতা হওয়ায় খুশি দু’জনেই। বিয়ের পর বৃষ্টির জন্য বেশ কিছুক্ষণ চার্চে অপেক্ষা করতে হয় তাঁদের। ঝড়বৃষ্টি পেরিয়ে বিয়ের ছবি এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। ধন্যি প্রেম, তাঁদের দেখে বলছেন অনেকেই।

     এই বিভাগের আরও খবর দেখুনঃ