আজ ৩০শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

https://jatiyobarta.com/wp-content/uploads/2020/12/দুই-পৃথক-শহরে-একই-কায়দায়-দুই-ব্যাংকে-ডাকাতি.png
দুই পৃথক শহরে একই কায়দায় দুই ব্যাংকে ডাকাতি !

দুই পৃথক শহরে একই কায়দায় দুই ব্যাংকে ডাকাতি !

ব্র্যাজিলের দুই শহরে প্রায় একই কায়দায় দুই পৃথক ব্যাংক ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে হয়েছে। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দুটি ঘটনার কোনো যোগসূত্র রয়েছে কি না, সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

বিবিসি জানিয়েছে, ব্যাংকো ডো ব্রাসিল নামের ব্যাংকটি দুর্বৃত্তদের লক্ষ্যবস্তু ছিল। আগের রাতেই ক্রিসিমাতে একই ব্যাংকের আরেকটি শাখায় হামলার ঘটনা ঘটেছিল। দুটি হামলার ঘটনা ঘটেছে মধ্যরাতের পর। এক ডজনের বেশি গাড়ি করে সশস্ত্র দুর্বৃত্তরা শহরে ঢোকে। দুটি ঘটনাতেই মানুষকে জিম্মি করে মানবঢাল তৈরি করে তারা।

উত্তর ব্রাজিলের ক্যামেটা শহরের একটি ব্যাংকে সশস্ত্র হামলা চালিয়ে লোকজনকে জিম্মি করে দুর্বৃত্তরা। ক্যামেট থেকে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও চিত্রে দেখা গেছে, একদল জিম্মিকে রাস্তায় সারি করে নেওয়া হচ্ছে।

Advertisements

শহরটির মেয়র ওয়ালডো ভ্যালেন্টি বলেছেন, এ হামলায় একজন নিহত হয়েছেন। তবে তাঁর বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি মেয়র। স্থানীয় একজন আইনপ্রণেতা বলেন, নিহত ব্যক্তি জিম্মিদের একজন ছিলেন। তাঁর মাথায় গুলি করা হয়েছিল।

ক্যামেটস পার রাজ্যের গভর্নর হেল্ডার বারভালো বলেন, ‘ঘটনাস্থলে নিরাপত্তা বাহিনী পাঠানো হয়েছে। শান্তি রক্ষার পাশাপাশি অপরাধীদের ধরতে আমরা সব প্রচেষ্টা চালাব।’

স্থানীয় গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে, দুর্বৃত্তরা শহরে দেড় ঘণ্টার বেশি সময় অবস্থান করার পর পালানোর রাস্তা বের করে। প্রথমে গাড়িবহরে করে পালানোর পর নৌকায় টোকানটিনস নদী পার হয়। ব্যাংক ডাকাতির সময় তারা রাস্তা বন্ধ করে দেয়। মানুষকে জিম্মি করার পাশাপাশি কয়েক শ গুলি ও বিস্ফোরক ব্যবহার করে।

সামরিক পুলিশের প্রতিবেদনে বলা হয়, দুর্বৃত্তরা ব্যাংক ডাকাতির সময় শহরের প্রধান সড়কের টানেলে আগুন লাগিয়ে দেয়, যাতে নিরাপত্তারক্ষীরা আক্রমণ চালাতে না পারে। পুলিশের প্রধান কার্যালয়েও হামলা চালানো হয়। নিরাপত্তারক্ষী ও পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। ভিডিও চিত্রে দেখা যায়, ডাকাতির পর কালো গাড়িতে করে সারিবদ্ধভাবে শহর ছাড়ে দুর্বৃত্তরা।

দুর্বৃত্তরা ব্যাংক থেকে কী পরিমাণ অর্থ নিয়েছে, তা জানা যায়নি। তবে শহরের রাস্তায় অর্থ ছড়িয়ে পড়ে থাকতে দেখা গেছে। রাস্তায় কাউকে কাউকে অর্থ কুড়াতে দেখা গেছে।

     এই বিভাগের আরও খবর দেখুনঃ