আজ ১লা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

https://jatiyobarta.com/wp-content/uploads/2020/12/তিমির-বমিতে-এক-মৎস্যজীবী-রাতারাতি-কোটিপতিjpg.jpg
তিমির বমিতে এক মৎস্যজীবী রাতারাতি কোটিপতি

তিমির বমিতে এক মৎস্যজীবী রাতারাতি কোটিপতি

রাতারাতি কোটিপতি হয়ে গেছেন থাইল্যান্ডের এক মৎস্যজীবী। তার ভাগ্য ফিরেছে জলজ স্তন্যপায়ী প্রাণী তিমির বমিতে। মৎস্যজীবী নারিসের মাসিক আয় যেখানে মাত্র পাঁচশ পাউন্ড। তিনি কিনা তিমির বদৌলতে পাচ্ছেন বাংলাদেশি মুদ্রায় ২৬ কোটি টাকা।

জানা গেছে, থাইল্যান্ডের ওই মৎস্যজীবী নারিস প্রথমে তিমির বমিকে সাধারণ পাথরের টুকরো ভেবেছিলেন। কিন্তু সেটার প্রকৃত দাম প্রায় ২৬ কোটি টাকা। এর ওজন ২৪ কিলোগ্রামের বেশি। এখন পর্যন্ত পাওয়া অ্যাম্বারগ্রিসের বৃহত্তম টুকরো এটি।

নারিস জানান, এক ব্যবসায়ী তাকে ওই তিমির বমির জন্য ২৬ কোটি টাকা দেওয়ার কথা জানিয়েছেন। অন্যদিকে নারিস এই অ্যাম্বারগ্রিসের সুরক্ষার কথা ভেবে পুলিশকেও জানাবেন বলে জানা গেছে।

Advertisements

আরও পড়ুন>>> রেললাইনে সেলফি নিচ্ছিলেন ভাই, বাঁচাতে গিয়ে বোনের মৃত্যু

উল্লেখ্য, বৈজ্ঞানিক ভাষায় তিমির এই বমিকে অ্যাম্বারগ্রিস বলে। এটি তিমির দেহ থেকে নির্গত বর্জ্য; যা তিমির অন্ত্র থেকে বেরিয়ে আসে। কখনো এটি প্রাণীটির মলদ্বার দিয়ে বেরিয়ে আসে, আবার কখনো পদার্থটি বড় হয়ে গেলে তিমি মুখ দিয়ে তা বের করে দেয়।

     এই বিভাগের আরও খবর দেখুনঃ