আজ ১লা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

https://jatiyobarta.com/wp-content/uploads/2020/11/হার-না-মানা-জীবনের-৫-গল্প.png
হার না মানা জীবনের ৫ গল্প

জীবনযুদ্ধে হার না মানা ৫ গল্প

প্রতিদিনের জীবনে আমাদের কত কিছু নিয়ে কমপ্লেইন। সৃষ্টিকর্তা আমাকে কেমন করলো না, কেন আমি আরেকটু লম্বা হলাম না,আমার মাথায় আরেকটু চুল হলে কত হ্যান্ডসাম দেখাতো, যদি আামি আরেকটু বেশি ফর্সা হতাম তাহলে কি খুব বেশি ক্ষতি হতো।

প্রিয় পাঠক বিশ্বাস করুন, আপনাার থেকে অনেক বেশি সমস্যায় থাকার পরেও এই পৃথিবীতে এমন কিছু মানুষ আছে যারা তাদের জীবনকে অনেক সহজ করে নিয়েছে।

আজকের এচই আর্টিকেলে আমি আপনাদেরকে এমন ৫জন মেয়েকে দেখাবো যাদের শরীরের নানান প্রতিবন্ধকতা থাকা সত্ত্বেও তারা হার মেনে যায় নি। এই আর্টিকেলটি আপনাকে একটু হলেও ভাবতে বাধ্য করবে। সৃষ্টিকর্তা আপনাকে ককতটা ভালো রেখেছে।

Advertisements

১। নাসিমা বানুঃ

https://jatiyobarta.com/wp-content/uploads/2020/11/নাসিমা-বানু.png

ইন্ডিয়ার রাজস্থানে বসবাসকারী এই তরুণী জন্মের পর পরই চেহারায় কালো দাগ দেখা যায় ধীরে ধীরে এই কালো দাগ তার পুরো চেহারাকে আাবৃত করে ফেলে। স্কুল জীবনে অনেকে তাাকে পোড়ামুখি নামে ডাকতো। তার এই মুখের দাগের করণে তাকে কেউ বিয়ে করতে যায়নি।

নাসিম বানুর মতে, জীবনে যতই প্রতিকূলতা আসুক না কেন তাকে মনোবলের সাথে মোকাবেলা করতে হবে। একজন নারীর মনের জোর কত বেশি তা নাসিমা বানুকে না দেখলে বোঝা যেত না।

২। জুলিয়ানঃ

https://jatiyobarta.com/wp-content/uploads/2020/11/জুলিয়ান.png

আফ্রিকার এই তরুণী খুব স্বাভাবিক পা নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছিল। কিন্তু এক বছর বয়স থেকে তার পা বেকে যেতে শুরু করে। ১৪বছর বয়সে তার পা এতটাই বেকে যায় যে তার হাটা চলাা বন্ধ হয়ে যায়। তার আত্মীয় স্বজনরা তাকে সার্পোট দিচ্ছিল না। শারীরিক প্রতিবন্ধকতা নিয়ে তার স্কুলে যেতে প্রায় ২ঘন্টা সময় লাগত।

তার এরকম হার না মানা মনোবল দেখে পরবর্তীতে একটি দাতাব্য প্রতিষ্ঠান তার পা অপারেশন করার দায়িত্ব নিয়ে নেয়। তারপর একটি সাকসেসফুল অপারেশনের পর বর্তমানে জুলিয়ান স্বাভাবিক পা নিয়ে বড় হচ্ছে।

৩। লুইস ওয়েডারবার্নঃ

https://jatiyobarta.com/wp-content/uploads/2020/11/লুইস-ওয়েডারবার্ন.png

লুইস ওয়েডারবার্ন

এই সুন্দরী তরুণীকে দেখলে যে কারো মন ভরে যায়। সৃষ্টিকর্তা তাকে একটি সুন্দর চেহারা দান করলেও তার শরীরর অ্যাবনরমালিটি তাকে অনেক পিছনে ফেলে দিয়েছে। তার শরীরের হাাড় একটির সাথে আরেকটি জোড়া লেগে যাচ্ছে। যার কারণে তার শরীর ধীরে ধীরে অচল হয়ে যাচ্ছে।

এমন শারীরিক প্রতিবন্ধকতা থাকার পরও লুইস ফ্যাশন এবং মডেল প্যাশন ছেড়ে দেননি। সে লন্ডন ফ্যাশন উইক নিয়ে কাজ করছে একজন মডেল হিসেবে। সত্যিই তার মনোবর আাকাশ ছোয়া।

সে প্রমাণ করে দেখিয়েছে কোনো ধরণের শারীরিক প্রতিবন্ধকতা আপনার ইচ্ছা পূরণকে দমিয়ে রাখতে পারবে না।

৪। আলাইকা ব্রাহলঃ

https://jatiyobarta.com/wp-content/uploads/2020/11/আলাইকা-ব্রাহল.png

আলাইকা ব্রাহল

জীবন যুদ্ধে হার না মানা আরেকজন নারী সৈনিক হচ্ছে আলাইকা ব্রাহল। জন্মগতভাবে তার মুখের চামড়া হাতের সাথে লেপ্টে ছিল। যার কারণে তার মুখের গড়ণ স্বাভাবিক ছিলনা। তার মুখের এমন গড়ণের কারণে তাকে জিবনে অনেক কটু শুনতে হয়েছে। কিন্তু সে এসব কথায় কান না দিয়ে মডলিং ক্যারিয়ারে অংশ গ্রহণ করেন।

আর এর মাধ্যমে প্রমাণ করে দিয়েছে সকল সাহসী মানুষই সুন্দর। নিজের স্বপ্ন পুরনের জন্য শুধুমাত্র অসীম অধ্যাবসায়ের প্রয়োজন।

৫। কারলি হেনরোটিঃ

https://jatiyobarta.com/wp-content/uploads/2020/11/কারলি-হেনরোটি.png

কারলি হেনরোটি

কারলি হেনরোটি নামের এই ২৩ বছরের তরুণী একটি মারাত্নক রোগে ভুগেছে এই রোগে শরীরের মাংস এবং টিস্যু হাড়ে রুপান্তরিত হয়ে যায়। কারলির শরিরের অবস্থা বর্তমানে এমন হয়েছে সে হাটতে চলতে পারছে না। তার মুখের টিস্যুগুলোও চোয়ালের হাড়ের সাথে লেগে গিয়েছে। যার জন্য সে হাফ ইঞ্চিরও মুখ খুলতে পারে।

আরও পড়ুনঃ মহাকাশ থেকে পবিত্র কাবা ঘরের ছবি তুললেন নভোচারী

এইজন্য কথা বলতে পারাটাও তার জন্য এখন খুবি কষ্টসাধ্য হয়ে গেছে। এত কষ্টের মাঝেও সে খুব পজিটিভ এটিটিউড নিয়ে বেঁচে রয়েছে।

এখন বলুন তো পাঠক সৃষ্টিকর্তা কি আমাদেরকে এদের থেকে অনেক ভালো রেখেছে, তাইনা! তাহলে কি এর জন্য আমরা তার একটু শুকরিয়া আাদায় করতে পারি না।

সবশেষে, আপনাদের সুন্দর এবং সুস্বাস্থ্য জীবন কামনা করছি।

     এই বিভাগের আরও খবর দেখুনঃ